শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লায় কলেজ ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণ ও ভারতে পাচারের চেষ্টা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
অক্টোবর ১০, ২০২০
news-image

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের এক ছাত্রীকে অপহরণ করে আটকে রেখে ধর্ষণ ও পরবর্তীতে ভারতে পাচারের চেষ্টাকালে প্রায় ৪ মাস পর কক্সবাজার থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার আসামিরা মামলা প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য হুমকি অব্যাহত রেখেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে নির্যাতিতার বাবা তার মেয়ে ও পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় শুক্রবার রাতে জিডি করেছেন।

বর্তমানে ওই ছাত্রীর লেখাপড়া বন্ধ হয়ে গেছে। শনিবার সাংবাদিকদের নিকট কান্নাজড়িত কণ্ঠে এমন অভিযোগ করেন নগরীর উত্তর রেসকোর্স এলাকার বাসিন্দা কলেজছাত্রীর বাবা।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের প্রথম বর্ষের ওই ছাত্রীকে গত ১১ জুন কুমিল্লা নগরীর ইস্টার্ন ইয়াকুব প্লাজার সামনে থেকে জেলার দেবিদ্বার উপজেলার রসুলপুর গ্রামের সাইফুল ইসলাম তুহিনের ছেলে আলাউদ্দিন সরকার সানমুন ও তার সহযোগীরা অপহরণ করে। এ ঘটনায় ৭ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়।

ছাত্রীর বাবা সাংবাদিকদের বলেন, আসামিরা তার মেয়েকে বিভিন্ন স্থানে আটকে রেখে নির্যাতন চালায়। পরবর্তীতে কক্সবাজারের কলাতলী এলাকায় একটি হোটেলে আটকে রেখে তাকে ভারতে পাচারের চেষ্টাকালে প্রায় ৪ মাস পর গত ১ অক্টোবর তার মেয়েকে পুলিশ উদ্ধার করে। অপহরণকারী চক্রের আলাউদ্দিন সরকার সানমুনসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

এসময় অপর আসামি ওয়ালীউল্লাহ রণি পালিয়ে যায়। বর্তমানে আসামিরা ও তাদের লোকজন মামলাটি তুলে নেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও নানাভাবে হুমকি অব্যাহত রেখেছে। তাই পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে নির্যাতিতার বাবা শুক্রবার রাতে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানা জিডি (নং- ৫১৬) করেন। এ ব্যাপারে তিনি পুলিশের সহায়তা চেয়েছেন।

আর পড়তে পারেন