মঙ্গলবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বিশ্ব রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মতো আরেকটি বড় মানবিক বিপর্যয় দেখার অপেক্ষায়

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১
news-image

 

বিশ্ব যখন করোনার বিশাল থাবায় জর্জরিত তখন আফগানরা তেলাবানদের দুদশক পর ক্ষমতা দখলের ফলে দেশ ছাড়তে ব্যস্ত।প্রায় ২২ লাক্ষ আফগান ইতোমধ্যেই প্রতিবেশী দেশগুলোতে আশ্রয় নিয়েছে এবং আরও প্রায় ৩৫ লাখ আফগান দেশের সীমানার মধ্যেই বাস্তুচ্যুত হয়েছে। যার সুনির্দিষ্ট সংখ্যা এখনো কারো জানা নেই।

বিশ্বের প্রতিটি দেশ যখন করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হিমশিম খাচ্ছে তখন আফগানদের দেশ ত্যাগ ও আশ্রয় একটি বড় সমস্যার সৃষ্টি। জার্মান ও যুক্তরাজ্য যথাক্রমে সারে চার হাজার ও দশহাজার মানুষ সরিয়ে নেয় তার মধ্যে তিন হাজার সাতশ ও সারে ছয়হাজার জনই আফগান নাগরিক।যুক্তরাষ্ট্র সরিয়ে নেয় আশি হাজার জন তার মধ্যে কতজন আফগান নাগরিক তার কোন সুস্পষ্ট ধারণা নেই।

ভারতীয় বিমানবাহিনীর একাধিক ফ্লাইটে করে আফগানিস্তান থেকে ৩৯২ জন দিল্লিতে এসে পৌঁছেছেন। এদের মধ্যে ১৪৬ জন ভারতীয় নাগরিক।এর মধ্যে দুই আফগান এমপি ও তাদের পরিবার রয়েছে। ভারতে আশ্রয় নেওয়া দুই আফগান এমপির নাম- আনারকলি হোনারিয়ার এবং নরেন্দ্র সিংহ খালসা। আফগানিস্তান থেকে ভারতে ফিরেছেন ৭৮ জন। তাদের মধ্যে ১৬ জন করোনায় আক্রান্ত।এরপর কোনো ঝুঁকি না নিয়ে ৭৮ জনকেই কোয়ারান্টিন করা হয়েছে। আক্রান্ত ১৬ জনের শরীরে করোনার কোনো লক্ষণ নেই।

যেখানে প্রতিটি রাষ্ট্র করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে হিমসিম খাচ্ছে সেখানে আফগান নাগরিকদের করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা দেওয়া খুবই কঠিন। অনেক দেশে তারা প্রায় একসঙ্গে অনেক জন বসবাস করছে মাস্ক পাচ্ছেনা ঠিক মতো। এতে করে আফগান শরনার্থীদের পাশাপাশি আশ্রয় দান কারী দেশের জন্য ঝুকি বাড়ছে।করোনা সংক্রমণ রোধে প্রয়োজনীয় জিনিসও তারা পাচ্ছেনা।মানবতর জীবন যাপন করছেন আফগান শরনার্থীরা। যদিও তালেবানরা চায়না আফগান নাগরিকরা দেশ ত্যাগ করুক।কিন্তু আফগান নাগরিকরা নিজেদের সুরক্ষিত মনে করছেন না তালেবানদের দেশ দখলের পর।জাতী সংঙ্ঘের হস্তক্ষেপ অতিদ্রুত প্রয়োজন এ বিষয়ে।তা না হলে বিশ্ব রোহিঙ্গাদের মতো আবারও এতো বিপুল সংখ্যাক আফগান শরণার্থী নিয়ে হিমশিম খাবে।এবং করোনা পরিস্থিতিতে আফগান নাগরিকেরা রয়েছে বিশাল ঝুকিতে।

লেখকঃ আনিকা নাজনীন

আর পড়তে পারেন