রবিবার, ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লায় ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুণীতে আহত মহিলাসহ তিনজন মূলত ছিলেন ভিক্ষুক

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ২৩, ২০১৯
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ
কুমিল্লা সদর উপজেলায় ছেলে ধরা সন্দেহে   গণপিটুণীতে  গুরুতর আহত মহিলাসহ  তিন ব্যক্তি ছেলে ধরা নয়। তারা ছিলেন ভিক্ষুক।  ব্রাহ্মণপাড়া স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তাদের পরিচয়  নিশ্চিত করে হাসপাতাল থেকে নিয়ে গেছে।

রবিবার (২১ জুলাই) সকাল দশটায় উপজেলার আমড়াতলি সড়ক এলাকায় ছেলে ধরা সন্দেহ করে তাদের গণপিটুণী দেওয়া হয়। পরে তাদেরকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

আহত অবস্থায় নারীসহ তিনজনকে উদ্ধার করে পুলিশ। গণপিটুনিতে আহতরা সবাই জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার বেজোড়া গ্রামের বাসিন্দা। তাদের মধ্যে একজন মহিলা (৫০) এবং দুইজন পুরুষ (দুজনের বয়স ৬০ বছর করে) ।

আমড়াতলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হোসেন জানান, রবিবার সকালে ওই তিন ব্যক্তি জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার বেজোড়া গ্রাম থেকে আমড়াতলী স্কুলের সামনে আসেন। পাশের একটি বাড়ির সামনে গিয়ে একটি ছোট শিশুকে ডাক দিলে ছেলেধরা সন্দেহে মহিলাসহ ওই তিন বয়স্ক ব্যক্তিকে এলাকাবাসী আটক করে এবং গণপিটুনি দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পরে জানা যায়, তারা ভিক্ষা করার জন্য এখানে এসেছিল।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ সালাহ উদ্দিন জানান, তারা ছেলে ধরা নয়। তারা মূলত ভিক্ষুক ছিলেন।

আর পড়তে পারেন