শনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লা নগরীতে অপহরণের পর নগ্ন ছবি তুলে চাঁদার দাবি, আটক ২

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ২৭, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
দীর্ঘদিন ধরে কুমিল্লার বিভিন্ন এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন লোকজনদেরকে অপহরণ করে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে তাদের নিকট থেকে মুক্তিপণ আদায় করত। এ ছাড়াও অপহরণকৃত ব্যক্তিদের নগ্ন করে তাদের নগ্নচিত্র মোবাইল ফোনে ভিডিও করে রাখত যা দিয়ে পরবর্তীতে বিভিন্ন সময়ে উক্ত ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে চাঁদা দাবি করত।

শনিবার (২৭ জুলাই) অভিযোগের ভিত্তিতে কুমিল্লায় র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে হাউজিং এষ্ট্রেট এলাকা থেকে ২ জন গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হল, সদর দক্ষিণ উপজেলার চাষাপাড়া এলাকার মো: মাহফুজ মিয়ার পুত্রবধূ রিনা আক্তার (৩৯), ইউসুফ মৌলভীর পুত্র মো: মাহফুজ (৩৮)।

গ্রেফতারকৃত দ্বয়কে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, তারা কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ থানার স্থায়ী বাসিন্দা। তারা দীর্ঘদিন ধরে কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন লোকজনদেরকে অপহরণ করে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে তাদের নিকট থেকে মুক্তিপণ আদায় করত। এ ছাড়াও অপহরণকৃত ব্যক্তিদের নগ্ন করে তাদের নগ্নচিত্র মোবাইল ফোনে ভিডিও করে রাখত যা দিয়ে পরবর্তীতে বিভিন্ন সময়ে উক্ত ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে চাঁদা দাবি করত।

র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ কুমিল্লা ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার (এসএপি) প্রণব কুমার জানান, র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন-শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিভিন্ন অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাব ফোর্সেস নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে থাকে।

সাম্প্রতিক সময়ে র‌্যাব-১১ এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপ সংক্রান্ত কর্মকাণ্ড অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। উক্ত অপরাধ দমনের লক্ষ্যে র‌্যাব অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার ও আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাব ফোর্সেস নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে থাকে। গ্রেফতারকৃত আসামিদ্বয়ের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তাদেরকে কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ থানায় হস্তান্তর করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য যে, উক্ত বিষয়ে গ্রেফতারকৃত আসামিদ্বয়ের বিরুদ্ধে কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ থানার মামলা নং-০১ তারিখ ০১/০৭/২০১৯ ইং ধারা ৩৬৪/৩২৩/৩৮৬/৩৭৯ পেনাল কোড-১৮৬০ তৎসহ ২০১২ সালের পর্ণোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন এর ৮(২) তদন্তাধীন আছে যাতে তারা পলাতক ছিল। দীর্ঘদিন যাবৎ র‌্যাব-১১ এর একটি বিশেষ দল তাদের উপর গোয়েন্দা নজরদারী চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

আর পড়তে পারেন