সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মেঘনায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের সালিশে প্রাণ গেল দফাদারের

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ১১, ২০২১
news-image

 

জাকির হোসেন হাজারীঃ

কুমিল্লার মেঘনা উপজেলায় সালিশি বৈঠকে প্রতিপক্ষের হামলায় পরিমল (৪২) নামের একজনের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (১১ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার চন্দনপুর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে এ ঘটনা ঘটে। চন্দনপুর ইউনিয়নের দফাদার নিহত পরিমল চন্দনপুর গ্রামের অনিল চন্দ্র দাসের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার চন্দনপুর গ্রামের অনিল চন্দ্র দাশের ছেলে পরিমলের সাথে তার চাচাত ভাই উমেষ চন্দ্র গংদের জমি জমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। শনিবার দুপুুরে উভয়পক্ষের লোকজন জমিজমার বিরোধ মেটানোর জন্য চন্দনপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে সালিশ বৈঠকে বসেন। বৈঠকের এক পর্যায়ে উমেষ ও তার লোকজন উত্তেজিত হয়ে পরিমলকে ধাক্কা দিলে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। মেঘনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথেই সে মারা যায়।

চন্দনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ মাষ্টার বলেন, পরিমল এবং উমেষ দু’জনেই আমার এখানে চাকরী করেন। একজন দফাদার, আরেকজন চৌকিদার। তাদের মধ্যে জায়গা নিয়ে বিরোধ তিন মাস আগে আমি নিস্পত্তি করেছিলাম। আজ চুড়ান্ত নিস্পত্তির জন্য তারা পরিষদে আসে। পরিমল পূর্বের নিস্পত্তি না মানায় ধমক দিলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে শুনছি সে মারা গেছে।

মেঘনা থানার ওসি মোঃ ছমি উদ্দিন বলেন, জায়গা সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে সালিশ বৈঠকে প্রতিপক্ষের থাপ্পরে পরিমল নামে একজন মাটিতে পড়ে মারাযায়। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বলেন, সম্ভবত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে । নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। আর উমেষসহ তাদের তিন ভাইকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।

আর পড়তে পারেন